★★জানাযা নামাযের পদ্ধতি নিম্নে দেওয়া হলোঃ-

          ১)নিয়তঃ জানাযা নামাযের প্রথমে নিয়ত করবে। তবে, এই নিয়ত মুখে বলা জরুরী নয়।

نَوَيْتُ اَنْ اُؤَدِّىَ لِلَّهِ تَعَا لَى اَرْبَعَ تَكْبِيْرَاتِ صَلَوةِ الْجَنَا زَةِ فَرْضَ الْكِفَايَةِ وَالثَّنَا ءُ لِلَّهِ تَعَا لَى وَالصَّلَوةُ عَلَى النَّبِىِّ وَالدُّعَا ءُلِهَذَا الْمَيِّتِ اِقْتِدَتُ بِهَذَا الاِْمَامِ مُتَوَجِّهًا اِلَى جِهَةِ الْكَعْبَةِ الشَّرِ يْفَةِ اَللَّهُ اَكْبَرُ
.
উচ্চারণঃ নাওয়াইতু আন উয়াদ্দিয়া লিল্লাহি তায়ালা আরবা'য়া তাকরীরাতি, ছালাতিল জানাযাতি, ফারধুল কেফায়াতি, ওয়াছ ছানায়ু লিল্লাহি তায়ালা, ওয়াছ ছালাতু 'আলান নাবিয়্যি ওয়াদ্দোয়ায়ু লিহাযাল মাইয়্যেতি, এক্বতেদাইতু বিহাযাল ইমামি, মুতাওয়াজ্জিহান ইলা জিহাতিল কা'য়বাতিশ শারিফাতি, আললাহু আকবার।


অনুবাদঃ আমি আল্লাহর তায়ালার উদ্দেশ্যে জানাযা নামাজের চারি তাকবীর ফরযে কেফায়া, কেবলামুখী হয়ে ইমামের পিছনে আদায় করার মনস্থ করলাম। ইহা আল্লাহ তায়ালার প্রশংসা, রাসূলের প্রতি দরূদ এবং মৃত ব্যক্তির জন্য দোয়া (আর্শীবাদ)।


★★উল্লেখ্য যে, নিয়তের ক্ষেত্রে অন্যান্য নামাযের নিয়তের ন্যায়, ঈমাম তাহার অতিরিক্ত খাছ কালাম (আনা ইমামুল লিমান হাধারা ওয়া মাইয়্যাহজুরু) । আর মোক্তাদিগণ তাদের অতিরিক্ত খাছ কালামটি পাঠ করিলে, (একতেদাইতু বিহাযাল ইমাম বলবে। আর নিয়তের মধ্যে পুরুষের ক্ষেমাইয়্যিতি লিহাযাল মাইয়্যিততি বলবে। আর মহিলা হলে লিহাযিহিল মাইয়্যিতি বলবে।


.
          ২)নিয়তের পরে ছানা পড়া: প্রথম তাকবীর দেওয়ার পর নিম্নোক্ত ছানাটি পড়া।
.
سُبْحَا نَكَ اَللَّهُمَّ وَبِحَمْدِكَ وَتَبَارَكَ اسْمُكَ وَتَعَا لَى جَدُّكَ وَجَلَّ ثَنَاءُكَ وَلاَ اِلَهَ غَيْرُكَ
.
উচ্চারণঃ সুব-হা-নাকাল্লাহুম্মা ওয়া বিহামদিকা, ওয়াতাবা-রাকাসমুকা, ওয়াতায়ালা জাদ্দুকা, ওয়াজাল্লা ছানাউকা ওয়ালা-ইলাহা গাইরুকা।

অনুবাদঃ হে আল্লাহ আমরা তোমার পবিত্রতার গুণগান করঅছি। তোমার নাম মঙ্গলময় এবং তোমার স্তুতি অতি শ্রেষ্ঠ, তুমি ব্যতীত আর কেহই উপাস্য নাই।


     ৩)দুরুদ শরীফ: দ্বিতীয় তাকবীর দেওয়ার পর নিম্নোক্ত দুরুধ পড়িবে।
.
اَللَّهُمَّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَعَلَى اَلِ مُحَمَّدٍ كَمَا صَلَّيْتَ عَلَى اِبْرَا هِيْمَ وَعَلَى اَلِ
 -اِبْرَ اهِيْمَ اِنَّكَ حَمِيْدٌ مَّجِيْدٌ

- اَللَّهُمَّ بَارِكْ عَلَى مُحَمَّدٍ وَعَلَى اَلِ مُحَمَّدٍ كَمَا بَارَكْتَ عَلَى اِبْرَا هِيْمَ وَعَلَى اَلِ اِبْرَا هِيْمَ اِنَّكَ حَمِيْدٌمَّجِيْدٌ
.
উচ্চারনঃ আল্লাহুম্মা ছাল্লিআলা মুহাম্মাদ, ও'য়ালা আ লি মুহাম্মদ, কামা ছাল্লাইতা আলা ইব্রাহীমা ওয়া'লা আলি ইব্রাহীম, ইন্নাকা হামিদুম্মাজীদ।

 আল্লাহুম্মা বা-রিক 'আলা মুহাম্মাদ, ও'য়ালা আলি মুহাম্মাদ, কামা বা-রাকতা 'আলা ইব্রাহীম, ও'য়ালা আলি ইব্রাহীমা ইন্নাকা হামীদুম্মাজীদ।

অনুবাদঃ হে আল্লাহমুহাম্মদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) এবং তাঁহার বংশধরগণের উপর ঐরূপ আশীর্বাদ অবতীর্ণ কর, যেইরূপ আর্শীবাদ হযরত ইব্রাহিম (আঃ) এবং তাঁহার বংশধরগণের উপর অবতীর্ণ করিয়াছ।নিশ্চয়ইতুমি প্রশংসাভাজন এবংমহামহিম

হে আল্লাহ! মুহাম্মদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) এবং তাঁহার বংশধরগণের উপর সেইরূপ অনুগ্রহ কর, যেরূপ অনুগ্রহ ইব্রাহীম (আঃ) এবং তাঁহার বংশরগণের উপর করিয়াছ। নিশ্চয়ই তুমি প্রশংসাভাজন এবং মহামহিম


    ৪)জানাযার দোয়া:  ৩য় তাকবীর দেওয়ার পর নিম্নোক্ত দো'য়া পড়বে। তবে, হ্যা,  নিম্নোক্ত দো'য়াটি বালেগ পুরুষ, বা মহিলা হলে পড়বে।

اَلَّهُمَّ اغْفِرْلحَِيِّنَاوَمَيِّتِنَا وَشَاهِدِنَا وَغَائِبِنَا وَصَغِيْرِنَا وَكَبِيْرِنَا وَذَكَرِنَا وَاُنْثَا نَا اَللَّهُمَّ مَنْ اَحْيَيْتَهُ مِنَّا فَاَحْيِهِ عَلَى الاِْسْلاَمِ وَمَنْ تَوَفَّيْتَهُ مِنَّا فَتَوَفَّهُ عَلَىالاِْيمَانِ بِرَحْمَتِكَ يَاَارْ حَمَالرَّحِمِيْنَ
.
উচ্চারণঃ আল্লাহুম্মাগফিরলি হাইয়্যেনা ওয়া মাইয়্যিতিনা ওয়া শাহীদিনা ওয়া গায়িবিনা, ওয়া ছাগীরিনা, ওয়া কাবীরিনা, ওয়া যাকারিনা, ওয়া উনছা-না। আল্লাহুম্মা মান আহ-ইয়াইতাহু মিন্না, ফাআহয়িহি 'আলাল ইসলাম, ওয়া মান তাওয়াফ ফাইতাহু মিন্না,  ফাতাওয়াফ ফাহু 'আলাল ঈমান, বিরাহমাতিকা ইয়া আর হামার রা-হিমিন।

অনুবাদঃ হে আল্লাহ্ আমাদের জীবিত ও মৃত উপস্থিত ও অুপস্থিত বালকও বৃদ্ধ পুরুষ ও স্ত্রীলোকদিগকে ক্ষমা কর। হে আল্লাহ আমাদের মধ্যে যাহাদিগকে তুমি জীবিত রাখ তাহাদিগকে মৃত্যুর মুখে পতিত কর। তাহাদিগকে ঈমানের সাথে মৃত্যু বরণ করাইও।


      ★আর, লাশ যদি নাবালক ছেলে হয়, তবে নিচের দোয়া পড়তে হবে 
.
اَللَّهُمَّ اجْعَلْهُ لَنَا فَرْطًاوْ اَجْعَلْهُ لَنَا اَجْرً اوَذُخْرًا وَاجْعَلْهُ لَنَا شَا فِعً وَمُشَفَّعًا-

উচ্চারণঃ আল্লাহুম্মাজ 'আলহু লানা ফারতাঁও ওয়াজ 'আলহু লানা আজরাও, ওয়া যুখরাঁও, ওয়াজ আলহু লানা শাফিয়াও ওয়া মুশাফ্ফায়ান।

অনুবাদঃ হে আল্লাহ! উহাকে আমাদের জন্য অগ্রগামী কর ও উহাকে আমাদের পুরস্কার ও সাহায্যের উপলক্ষ কর এবং উহাকে আমাদের সুপারিশকারী ও গ্রহনীয় সুপারিশকারী বানাও।


       ★আর, লাশ যদি নাবালেগা মেয়ে হয়, তবে নিচের দোয়া পড়তে হবে।

اَللَّهُمَّ اجْعَلْهَا لَنَا فَرْطًا وَاجْعَلْهَا لَنَا اَجْرًا وَذُخْرًا وَاجْعَلْهَا لَنَا شَا فِعًة وَمُشَفَّعةَ 

উচ্চারণঃ আল্লাহুম্মাজ 'আলহা লানা ফারতাঁও ওয়াজ 'আলহা লানা আজরাঁও, ওয়া যুখরাঁও, ওয়াজ আলহা লানা শাফিয়াতাও, ওয়া মুশাফ্ফায়ান।

অনুবাদঃ হে আল্লাহ! ইহাকে আমাদের জন্য অগ্রগামী কর ও ইহাকে আমাদের পুরস্কার ও সাহায্যের উপলক্ষ কর। এবং ইহাকে আমাদের সুপারিশকারী ও গ্রহনীয় সুপারিশকারী বানাও।

★এরপর, ইমাম সাহেব ৪র্থ তাকবীর দিয়ে, ডানে এবং বামে ছালাম ফিরাইবেন।




Post a Comment

Previous Post Next Post