উত্তরঃ- যখনই মাসিক শুরু হবে তখন থেকে মাসিক শেষ হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত, মধ্যবতী সময়ের সব ওয়াক্তের নামায  মাফ অর্থাৎ নামায পড়তে হবে না।। যদিও কোনো ওয়াক্তের ফরয নামাযের মধ্যে হায়েয শুরু হয়, তবুও ঐ ফরয নামায আর পড়তে হবে না  অর্থাৎ এই ওয়াক্তের নামায মাফতবে সুন্নত বা নফল নামারত অবস্থায় মাসিক শুরু হলে, অবশ্য এইসব নামাযের কাযা আদায় করতে হবে।


আর যদি  এমন হয় যে, কোনো মহিলা ওয়াক্তের নামায পড়ে নাই কিন্তু ওয়াক্তের সময় এখনও বাকি আছে। এমতাবস্থায় মাসিক শুরু হলে উক্ত ওয়াক্তের নামাযও মাফ হয়ে যাবে

তথ্যসূত্রঃ- বেহেশতি জেওর ১ম খন্ড।


Post a Comment

Previous Post Next Post