লিউকোরিয়া বা সাদা স্রাব হচ্ছে সমস্ত মহিলাদের একটি সর্বজনীন সমস্যা। অধিকাংশ স্রাব জীবন শৈলী ও শারীর বৃত্তীয় সংক্রান্ত, যার কোন চিকিত্‍সা প্রয়োজন হয় না। তবে এটা প্রচুর পরিমানে বা রক্তে দাগ, দুর্গন্ধ যুক্ত এবং স্বাভাবিক রংয়ের না হলে গুরুত্বের সাথে দেখতে হবে।

সাদা স্রাব কি?

সাদা স্রাব হলো হলুদ, সাদা পিচ্ছিল ও আঠালো রঙ্গের নিঃসরণ, যা শুকালে হালকা বাদামি-হলুদ রঙ্গের বর্ণ ধারণ করে। সাধারণত, স্বাভাবিক স্রাব পাতলা এবং সামান্য চটচটে হয়। আর এটা অনেকটা নাসিকা স্রাব এর মত হয়।

অথবা ঋতুস্রাব থেকে পবিত্র হওয়ার পরে মহিলাদের লজ্জাস্থান থেকে যে স্রাব নির্গত হয়।

সাদা স্রাব বের হলে নামায পড়ার বিধান:

ঋতুস্রাব থেকে পবিত্র হওয়ার পরে মহিলাদের লজ্জাস্থান থেকে নির্গত সাদাস্রাব নাপাক নয়। এটি ইমাম আবু হানিফা রহ. সহ অধিকাংশ আলেমদের অভিমত। আল্লামা মুহাম্মদ বিন সালেহ আল-উসাইমীন এই অভিমত গ্রহণ করেছেন

After purifying from menstruation, the white discharge emitted from the uterus of the woman is not Napak. It is the opinion of most islamic scholars including Imam Abu Hanifa (R). Allama Muhammad Bin Saleh Al-usaimin have accepted this opinion.


সুতরাং তা কাপড়ে লাগলে কাপড় নাপাক হবে না। ফলে নামাজের পূর্বে কাপড় পাল্টানোরও প্রয়োজন নাই।

Therefore, for this cloth will not be napak. So, there is no need to change cloth.

তবে যথাসম্ভব, কাপড়ে না লাগানোর চেষ্টা করা উত্তম। তাই প্যাড, আন্ডারওয়্যার অথবা কোন কাপড়ের টুকরো লজ্জাস্থানে দিয়ে নামায পড়া ভালো

তবে মনে রাখতে হবে যে, সাদা স্রাব বের হলে ওযু নষ্ট হয়ে যাবে।

সুতরাং সালাতের পূর্বে পূর্বে লজ্জাস্থান ধৌত করার পর, অজু করে সালাত আদায় করবে।

▬▬▬◄❖►▬▬▬

উত্তর প্রদান করেছেন:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
(লিসান্স, মদীনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়)
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, সউদী আরব।





Post a Comment

Previous Post Next Post