২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক অনুমোদিত  দেশের সকল সরকারি-বেসরকারি  কলেজ/মাদরাসা/কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একাদশ শ্রেণিতে ১ম পর্যায়ে এসএমএস ও অনলাইনের মাধ্যমে ভর্তির প্রাথমিক আবেদন কার্যক্রম ১২ মে থেকে শুরু হয়ে ২৩ মে পর্যন্ত চলবে। ২য় পর্যায়ে ১৯ জুন থেকে ২০ জুন পর্যন্ত এবং ৩য় পর্যায়ে ২৪ জুন- এ আবেদন করা যাবে



একাদশ শ্রেণিতে প্রাথমিক আবেদন করার পদ্ধতিঃ 



একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির প্রাথমিক আবেদন দুইভাবে করা যায়। যথাঃ- অনলাইন এবং এসএমএস। নিম্নে উভয়ভাবে আবেদন করার পদ্ধতি দেওয়া হলো


অনলাইন এর মাধ্যমে প্রাথমিক আবেদন করার পদ্ধতিঃ 



অনলাইনে আবেদনের পূর্বে শিক্ষার্থীকে শুধুমাত্র  টেলিটক/বিকাশ/শিওরক্যাশ/গ্রামীণফোন ব্যবহার করে অন-লাইনের আবেদন ফি প্রদান করতে হবে। প্রার্থীকে তার এসএসসি/সমমানের পরীক্ষার রোল নম্বর, বোর্ড, পাসের সন এবং রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার করে টেলিটক/বিকাশ/শিওরক্যাশ/গ্রামীনফোন এর মাধ্যমে ফি প্রদান করতে হবে।

আবেদন ফিঃ অন-লাইনে সর্বোচ্চ ১০ টি কলেজে আবেদনের জন্য ১৫০/- টাকা আবেদন ফি প্রদান করতে হবে। উল্লেখ্য, অনলাইনে আবেদনের ক্ষেত্রে ১ টি কলেজে আবেদন করলেও ১৫০/- টাকা চার্জ করবে, আবার ১০টি কলেজে আবেদন করলেও ১৫০/- টাকা চার্জ করবে। নিম্নে টেলিটক ও জনপ্রিয় বিকাশ এর মাধ্যমে আবেদন ফি প্রদান করার পদ্ধতি দেওয়া হলোঃ


টেলিটক এর মাধ্যমে অনলাইনের ফি প্রদানের নিয়মঃ
  • প্রথমে টেলিটকের প্রিপেইড মোবাইলের Message (Option)-এ যান।
  • লিখুন, CAD<space>WEB <space> এসএসসি/সমমান পরীক্ষা পাসের Board এর নামের প্রথম তিন অক্ষর<space>এসএসসি/সমমান পরীক্ষা পাসের Roll<space>এসএসসি/সমমান পরীক্ষা পাসের Year
  • উদাহরণস্বরূপঃ CAD WEB DHA 123456 2019 sent to 16222. 
  • এবং পাঠিয়ে দিন ১৬২২২ নাম্বারে।
  • এরপর, ফিরতি এসএমএস এ আবেদনকারীর নাম এবং আবেদন ফি বাবদ ১৫০ টাকা কেটে নেয়া হবে, তা জানিয়ে একটি পিন কোড প্রদান করা হবে।
  • তারপর, আবার মেসেজ অপশনে গিয়ে লিখুন,  CAD<space>YES<space>PIN<space>CONTACT NUMBER 
  • এবং পাঠিয়ে দিন ১৬২২২ নাম্বারে। 
  • ফি সঠিকভাবে জমা হলে প্রার্থীর মোবাইলে নিশ্চিতকরণের একটি Transaction ID সহ SMS যাবে।


বিকাশ এর মাধ্যমে অনলাইনের ফি প্রদানের নিয়মঃ

  • প্রথমে বিকাশ এপ এর হোম পেইজে যান। এবং সেখান থেকে 'পে বিল' আইকনে ট্যাপ করুন।
  •  তারপর বিলের তালিকা থেকে 'xi class admission' সেলেক্ট করুন
  • তারপর পেমেন্ট কোড এবং মবাইল নাম্বার দিন। পেমেনন্ট কোড হচ্ছে বোর্ডের প্রথম ৩ অক্ষর, পাসের সন এবং রোল নাম্বার । যেমনঃ SYL2019124578 (কোনো স্পেস দিবেন না)
  • তারপর পেমেন্ট -এর তথ্য যাচাই করে পবর্তী ধাপে যান।
  • তারপর পিন নাম্বার দিন।
  •  এরপর স্কিনের নিচেই আছে ট্যাপ এন্ড হোল্ড। লেনদেন নিশ্চিত করলে ট্যাপ করে কিছুক্ষণ ধরে রাখুন।
  • এরপর কনফার্মেশন মেসেজ ও বিল পেমেন্ট মেসেজ পাবেন। পরবর্তী ব্যবহারের জন্য ট্রান্সজেকশন আইডি সংরক্ষণ করুন।

অনলাইন এর মাধ্যমে আবেদন করার জন্য টেলিটক/বিকাশ/শিওর ক্যাশ/গ্রামীনফোন এর মাধ্যমে টাকা জমা দেওয়ার পর, নির্ধারিত সাইট থেকে এপ্লাই করতে হবে। সাইটটি নিম্নরূপ দেওয়া হলোঃ

আবেদন করার লিংকঃ http://www.xiclassadmission.gov.bd


লিংকে প্রবেশ করার পর করনীয়ঃ
  • উপরের লিংকে প্রবেশ করার পর, যে মেনু আসবে, তাতে 'Apply Online' এ ক্লিক করতে হবে।
  • এরপর, প্রার্থীর এসএসসি/সমমান পরীক্ষার পাসের সন, বোর্ড এর নাম, রোল নম্বর ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিয়ে এন্ট্রি করতে হবে।
  • এন্ট্রি করার পর, আবেদনকারীর তথ্য সঠিক হলে, সে তার ব্যক্তিগত তথ্য এবং এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত GPA দেখতে পারে।
  • এরপর মোবাইল নম্বর দিতে হবে (আবেদনের সময় যে মোবাইল নম্বর দিয়েছেন) এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে কোটা দিবেন।
  • তারপর, তাকে ভর্তিচ্ছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, গ্রুপ, শিফিট এবং ভার্সন Select করতে হবে। এভাবে শিক্ষার্থী (এসএমএস ও অনলাইন উভয় পদ্ধতি মিলে সর্বমোট ১০টি কলেজ Select করতে পারবে। এই ফরমে আবেদনকারী তার সকল আবেদনের পছন্দক্রমও নির্ধারণ করতে পারবে।
  • তারপর, আবেদনকারী 'Preview Application' Button -এ ক্লিক করে, তার আবেদনকৃত কলেজসমূহের তথ্য ও পছন্দক্রম দেখতে পারবে। 
  • এখন, Preview তে দেখানো তথ্য সঠিক হলে, submit অপশনে ক্লিক করুন। 
  • আবেদনটি সফলভাবে submit হলে, আবেদনকারী আবেদনের সময় দেওয়া মোবাইল নম্বরে একটি নিশ্চিতকরণ sms পাবেন। এবং একটি security code ও যাবে। যা সংরক্ষণ করে রাখতে হবে। কেননা, পরবর্তীতে আবেদন সংশোধন ও ভর্তির সময় এটি লাগবে।
  • এখন আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হলো।
  • আবেদনকারী চাইলে তার আবেদনকৃত তথ্যাদিসহ উক্ত ফরম টি প্রিন্ট করে রাখতে পারেন।

এসএমএস (sms) এর মাধ্যমে প্রাথমিক আবেদন করার পদ্ধতিঃ


এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করতে হলে, শুধুমাত্র টেলিটক প্রিপেইড সিম হতে হবে। এবং সর্বোচ্চ ১০ টি কলেজে আবেদন করা যাবে। এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করার ক্ষেত্রে সর্বপ্রথম দেওয়া এসএমএস, প্রথম পছন্দের তালিকায় থাকবে। এভাবে পর্যায়ক্রমে পছন্দক্রম ধরা হবে এবং এসএমএস এর মাধ্যমে সর্বোচ্চ ০৫ টি কলেজে আবেদন করা যাবে।

আবেদন ফিঃ এসএমএসে আবেদনের ক্ষেত্রে প্রতি আবেদনের জন্য ১২০ টাকা ফি নির্ধারণ করা হয়েছে। একজন আবেদনকারী একাধিক প্রতিষ্ঠান বা একই প্রতিষ্ঠান এর একাধিক গ্রুপে বা একই প্রতিষ্ঠানের একাধিক শিফটে আলাদাভাবে আবেদন করতে পারবে, তবে প্রতিবারই ফি বাবদ ১২০/- টাকা কেটে নেওয়া হবে।  নিম্নে এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন করার পদ্ধতি দেওয়া হলোঃ


  1. টেলিটক পি-পেইড সংযোগ থেকে মোবাইলের ম্যাসেজ অপশনে যান।
  2. তারপর, লিখুন, CAD <space> ভর্তিচ্ছু কলেজ/মাদরাসার EIIN <space> ভর্তিচ্ছু গ্রুপের নামের প্রথম দুই অক্ষর <space>  বোর্ডের প্রথম তিন অক্ষর  <space> এসএসসি/সমমান পরীক্ষার রোল নম্বর <space> এসএসসি/সমমান পরীক্ষয় পাসের সন <space> এসএসসি/সমমান পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন নম্বর <space> ভর্তিচ্ছু শিফটের নাম  <space> ভার্সন <space>  কোটার নাম (যদি থাকে। না থাকলে উক্ত যায়গায় N দিবেন)) 
  3. এরপর পাঠিয়ে দিন ১৬২২২ নাম্বারে।
সকল মাদরাসা ও স্কুল কলেজের EIIN জানতে এখানে ক্লিক করুন

উদাহরণঃ  CAD 696923 SC DHA 123456 2019 1214151625 M B FQ

  • উদাহরণের মধ্যে 696923 হচ্ছে ভর্তিচ্ছু কলেজ/মাদরাসার EIIN
  • SC হচ্ছে ভর্তিচ্ছু গ্রুপের নামের প্রথম দুই অক্ষর
  • DHA হচ্ছে  বোর্ডের প্রথম তিন অক্ষর
  • 123456 হচ্ছে এসএসসি/সমমান পরীক্ষার রোল নম্বর
  •  2019 হচ্ছে এসএসসি/সমমান পরীক্ষয় পাসের সন
  • 1214151625 হচ্ছে  এসএসসি/সমমান পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন নম্বর 
  •  M হচ্ছে  ভর্তিচ্ছু শিফটের নামের প্রথম অক্ষর
  • B হচ্ছে ভার্সন এর প্রথম অক্ষর
  • FQ হচ্ছে মুক্তিযোদ্ধা কোটা


তারপর, ফিরতি এসএমএস এ আবেদনকারীর নাম, কলেজ/মাদরাসার EIIN ও নাম, গ্রুপের নাম ও শিফট সহ ফি বাবদ কত টাকা কেটে নেয়া হবে তা জানিয়ে একটি PIN প্রদান করা হবে।

আবেদনে সম্মত থাকলে Message অপশনে গিয়ে লিখতে হবে-
CAD<space>YES<space>PIN<space>CONTACT NUMBER (শিক্ষার্থীর/অভিভাবকের ব্যবহৃত বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে পুনঃনিবন্ধিত যে কোন মোবাইল নম্বর) লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে।

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে: উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাসকৃত আবেদন কারীদের ক্ষেত্রে রোল নম্বর এবং রেজিস্ট্রেশন নম্বর একই বলে বিবেচিত হবে। এ ক্ষেত্রে রোল নম্বরে অন্তর্ভুক্ত ‘-‘ চিহ্নটি উপেক্ষা করতে হবে। উল্লেখ্য যে, বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় হতে উত্তীর্ণ প্রার্থীদেরকে শুধুমাত্র টেলিটক এর মাধ্যমে ফি প্রদান করতে হবে।


২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির বিস্তারিত নীতিমালাসহ প্রয়োজনীয় সকল তথ্য দেখুন এখানে







Post a Comment

Previous Post Next Post