আমরা সাধারণত কোনো মহিমান্বিত রাতে প্রত্যেকেই সালাত আদায়, কুরআন তিলায়াত, দুয়া-জিকির ও দান-খয়রাত ইত্তাদির মাধ্যমে সাড়া রাত জেগে ইবাদত করি কিন্তু হায়েয-নেফাসগ্রস্থ নারীদের কি করনীয় বা তারা কি কি ইবাদত করতে পারবে, সেটা আমরা অনেকেই জানি না, সঠিক মত অনুযায়ী- তারা এ রাতগুলোতে সব ইবাদতই করতে পারবেন শুধু নামায আদায় ও কুরআন তিলায়ত করতে পারবেন না । নিম্নে দলীলসহ বিস্তারিত আলচনা করা হলোঃ

মাসিক (হায়েজ) অবস্থায় তাসবীহ-তাহলীল, জিকির-আযকার, দোয়া-দুরুধ পড়ার বিধান



মাসিক চলাকলীন সময় জিকির-আযকার করা, দুরুধ শরীফ পড়া, ওযীফা পড়া, বিভিন্ন দোয়া পড়া যায়। এমনকি এসময় কুরআনে কারীমের দোয়ার আয়াতগুলোও দোয়া হিসেবে পড়া যাবে। তবে কুরআনের তিলাওয়াত হিসেবে পড়া যাবে না।

তথ্যসূত্র– ফাতওয়ায়ে আলমগীরী, ফাতওয়ায়ে রাহীমীয়া।

দলীলঃ

১) দাঁড়িয়ে, বসে, শুয়ে, ওযূহীন ও (বীর্যপাত বা সঙ্গম-জনিত) অপবিত্র অবস্থায় এবং মহিলাদের মাসিক অবস্থায় আল্লাহর যিকির করা যায়। যেমনঃ আয়েশা (রাদিয়াল্লাহু আনহা) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, আল্লাহর রসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সর্বক্ষণ (সর্বাবস্থায়) আল্লাহর যিকির করতেন।’ (মুসলিম-৩৭৩)

২) এক বর্ণনায় এসেছে,
عَنْ مَعْمَرٍ قَالَ: سَأَلْتُ الزُّهْرِيَّ، عَنِ الْحَائِضِ وَالْجُنُبِ أَيَذْكُرَانِ اللَّهَ؟ قَالَ: نَعَمْ، قُلْتُ: أَفَيَقْرَآنِ الْقُرْآنَ؟ قَالَ: لَا.

মা‘মার রাহ. বলেন, আমি যুহরী রাহ.-কে জিজ্ঞাসা করলাম, ঋতুমতী নারী ও যার উপর গোসল ফরয হয়েছে সে আল্লাহর যিকির করতে পারবে? তিনি বললেন, হাঁ, পারবে। আমি জিজ্ঞাসা করলাম, কুরআন তিলাওয়াত করতে পারবে? তিনি বললেন, না। -মুসান্নাফে আবদুর রাযযাক, হাদীস ১৩০২

৩) ইবরাহীম নাখায়ী (র) বলেন-
عَنْ إِبْرَاهِيمَ قَالَ: الْحَائِضُ وَالْجُنُبُ يَذْكُرَانِ اللَّهَ وَيُسَمِّيَانِ.

ইবরাহীম নাখায়ী রাহ. বলেন, ঋতুমতী নারী ও যার উপর গোসল ফরয হয়েছে সে আল্লাহর যিকির করতে পারবে এবং বিসমিল্লাহও পড়তে পারবে। -মুসান্নাফে আবদুর রাযযাক, হাদীস ১৩০৫; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/৩৮; তাবয়ীনুল হাকায়েক ১/১৬৫; হাশিয়াতুত তহতাবী আলাল মারাকী ৭৭; আদ্দুররুল মুখতার ১/২৯৩



Post a Comment

Previous Post Next Post

কোনো কিছু জিজ্ঞাসা করতে চান?


সুপ্রিয় বন্ধুরা! আপনারা কোনো কিছু জানতে চাইলে, পোষ্টের কমেন্ট বক্সে জিজ্ঞাসা করতে পারবেন। আর আমাদের সাইটের কোনো লিংকে ক্লিক করার পর অন্য সাইটে চলে গেলে ভয় পাবেন না। তা কেটে দিয়ে অথবা মোবাইলের ব্যাক বাটনে ক্লিক করে আবার ঐ লিংকে ক্লিক করুন কাঙ্ক্ষিত তথ্য পাবেন। -------ধন্যবাদ��