উত্তর: রমযান মাসে অনেকে অজ্ঞতার করণে সেহরির সময় আজান হওয়ার পরও খেতে থাকে। এতে নিশ্চয় তার রোযা ভেঙে যাবে এবং কাযাও ওয়াজিব হবে। উল্লেখিত মাস'য়ালায় রোযাদার ব্যক্তি সেহরির সময় শেষ হয়ে যাওয়ার পর, খাওয়ার কারণে তার রোযা হবে না।

রমযানের রোযা রাখার পর ইচ্ছাকৃত ভেঙে ফেললে কাফফরা ওয়াজিব হয়। উপর্যুক্ত মাস'আলার ক্ষেত্রে একথা বলা যাবে না যে, এ ব্যক্তি রোযা রেখে ইচ্ছাকৃতভাবে ভেঙে ফেলেছে। বরং বলতে হবে, এ ব্যক্তি রোযাই রাখেনি।

আর রোযা না রাখলে গোনাহ তো হবেই; কিন্তু এক রোযার পরিবর্তে এক রোযা রেখে নিলেই চলবে, কাফফারা ওয়াজিব হবে না।

ইফতা বিভাগ, দারুল উলুম দেওবন্দ

Post a Comment

Previous Post Next Post