রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে আগামী ২০ অক্টোরব।

 পরীক্ষায় অংশ নিতে ভর্তীচ্ছুদের আগামী ৩ সেপ্টেম্বর দুপুর ১২টা থেকে ১২ সেপ্টেম্বর রাত ১২টার মধ্যে প্রাথমিক আবেদন করতে হবে।

এদিকে, লিখিত পরীক্ষা চালু করাসহ এ বছর পরীক্ষা পদ্ধতিতে বেশ কয়েকটি পরিবর্তন আনা হয়েছে।

আজ বুধবার (২৪ জুলাই) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভা শেষে এসব সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। 

ভর্তি উপ-কমিটির সভাপতি ও রাবি উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা জানান, আগামী ২০-২২ অক্টোবর পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ বছর লিখিত পদ্ধতি চালু করা হয়েছে। এ ছাড়াও পরীক্ষা পদ্ধতিতে বেশ কয়েকটি পরিবর্তন আনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তিনি।

সভা সূত্রে জানা গেছে, একজন ভর্তিচ্ছুকে ৫৫ টাকা দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে (www.ru.ac.bd) প্রাথমিক আবেদন করতে হবে। প্রাথমিক আবেদনের জন্য মানবিক বিভাগ থেকে পাসকৃত শিক্ষার্থীদের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক কিংবা সমমান পরীক্ষায় যেকোনো একটিতে চতুর্থ বিষয়সহ ন্যূনতম জিপিএ-৩ সহ ৭, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের ন্যূনতম জিপিএ-৩.৫ সহ ৭.৫ ও বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের ন্যূনতম জিপিএ-৩.৫ সহ ৮ পেতে হবে।
ভর্তিচ্ছুদের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে প্রতি ইউনিটের জন্য ৩২ হাজার (কোটাসহ) শিক্ষার্থীর নাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে। চূড়ান্ত আবেদনের জন্য মনোনীত পুনরায় ওয়েবসাইটে গিয়ে এক হাজার ৯৮০ টাকা দিয়ে আবেদন করতে হবে।

১৭ সেপ্টেম্বর থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভর্তীচ্ছুরা চূড়ান্ত আবেদন করতে পারবেন।

এদিকে এ বছর পরীক্ষা পদ্ধতিতে পরিবর্তন আনা হয়েছে। বিগত বছরগুলোতে ৫টি ইউনিট থাকলেও এ বছর তিনটি ইউনিটে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ‘এ’ ইউনিটের অধীনে কলা, সামাজিক বিজ্ঞান, আইন, শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট এবং চারুকলা অনুষদ, ‘বি’ ইউনিটের অধীনে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ, ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট এবং ‘সি’ ইউনিটের অধীনে বিজ্ঞান, জীব ও ভূ-বিজ্ঞান, কৃষি এবং প্রকৌশল অনুষদের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।



Post a Comment

Previous Post Next Post